আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

লরির ধাক্কায় ছিটকে পড়ে মোটরসাইকেল আরোহী দুই নারী নিহত

মাজহারুল ইসলাম রাসেল

নরসিংদীতে তেলবাহী লরির ধাক্কায় মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে শান্তা আক্তার (২৬) ও নাজমা আক্তার (২২) নামে দুই নারী নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের চালক সোহেল মিয়া (৩০) । শনিবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাঁচদোনা বাজার এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শান্তা গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া থানার কামারগাঁও গ্রামের রতন মিয়ার মেয়ে ও নাজমা একই থানার সনমানিয়া গ্রামের মো: মিরাজ উদ্দিনের মেয়ে।

হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, একটি মোটরসাইকেল যোগে তিনজন আরোহী ঢাকার দিকে যাচ্ছিলেন। পাঁচদোনা বাজার এলাকা অতিক্রম করার সময় একটি তেলবাহী লরি ওই মোটরসাইকেলটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এ সময় মোটরসাইকেলের চালকসহ তিনজনই মহাসড়কে ছিটকে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই শান্তা আক্তারের মৃত্যু হয়। অপর দুজনকে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়ার পর নাজমা আক্তারের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির করে ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, তেলবাহী লরিটি বেপরোয়া গতিতে পাঁচদোনা বাজার এলাকা অতিক্রম করা সময় মোটরসাইকেলটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে মহাসড়কে ছিটকে পড়ে দুই নারী নিহত ও মোটরসাইকেল চালক সোহেল মিয়া (৩০) আহত হন। দুর্ঘটনার পরই ওই তেলবাহী লরিটি নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এর চালক। পরে মাধবদী থেকে ওই লরি আটক করে হাইওয়ে পুলিশ।

ইটখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নূর হায়দার তালুকদার জানান, বেপরোয়া গতিতে তেলবাহী লরিটি পেছন থেকে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং মাধবদী থেকে অভিযুক্ত লরিটি জব্দ করি। তবে এর চালক পালিয়ে যায়।

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ