আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মনোহরদীতে মেম্বার প্রার্থীর কর্মীকে পিটিয়ে আহত করেছে অন‍্য প্রার্থীর সমর্থকরা

মুহ.ইসমাইল হোসেন খান

নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার শুকুন্দী ইউপি নির্বাচনে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের (ফুটবল) প্রতীকের ইউপি সদস‍্য প্রার্থী মো. হানিফের কর্মী সোহেল (২৫) কে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাতে সাভারদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত সোহেল ওই গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে। তিনি সাভারদিয়া চৌরাস্তা মোড়ের মুদি দোকানদার। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী।  একই ওয়ার্ডের (মোরগ) প্রতীকের সদস্য প্রার্থী মো. উসমান গণির লোকজন তাকে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে দোকানের কাজ শেষে বাড়ী ফিরছিলেন সোহেল। বাড়ীর সামনে রাস্তায় পৌঁছলে সদস্য প্রার্থী উসমানের কর্মী মাসুদ, উমান, জজ মিয়াসহ আরো কয়েকজন তাকে আটক করে। পরে সেখানে তাকে এলোপাতারি মারধর করা হয়। এতে তাঁর শরীরের বিভিন্ন অংশ ফুলে ও থেতলে যায়। এসময় তার সাথে থাকা ২০ হাজার টাকাও নিয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সদস্য প্রার্থী মো. হানিফ বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. উসমান গণি ও তার বহিরাগত সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে ও আমার কর্মী-সমর্থকদের বাড়ি-ঘরে গিয়ে তাঁদের ভয়-ভীতি ও হুমকী দিচ্ছেন। মঙ্গলবার রাতে আমার কর্মী সোহেলকে মারধর করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে আমার কর্মী সমর্থকেরা আতঙ্কে আছেন। এতে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবশে নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এ বিষয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উসমান গণির বক্তব্য নেওয়ার জন্য তার মোবাইল   ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ