আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

প্রতিকি ছবি

বিয়ে করার দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান

খাসখবর প্রতিবেদক

নরসিংদীতে বিয়ে করার দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে এসে ঘরের দরজার সামনে অবস্থান নেয় এক বিয়ে পাগল প্রেমিকা। শুক্রবার সকালে এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে নরসিংদী সদর উপজেলার চরাঞ্চল আলোকবালী ইউনিয়ন’র বকশালিপুর গ্রামে।

জানা যায়, বকশালিপুর গ্রামের জজ মিয়ার ছেলে জামাল (৩২) পেশায় একজন অটোর ড্রাইভার, বছর দেড়েক আগে তার সাথে সখ্যতা গড়ে উঠে পার্শ্ববর্তী মুরাদনগর গ্রামের বাবুল মিয়ার মেয়ে স্বামী পরিত্যক্তা মাহমুদা আক্তারের(২৫) সাথে। তাদের এই সখ্যতা এক সময় ভালবাসায় রূপ নেয়। তারা একে অপরকে ভালবাসতে শুরু করে। বর্তমানে তাদের এই ভালবাসার বয়স এক বছর। ভালবাসার টানে তারা প্রায় সময় দেখা সাক্ষাৎ করাসহ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যেত। শুক্রবার সকালে জামাল ও মাহমুদাকে এক সাথে ঘুরতে দেখে ফেলে জামালের বাড়ীর লোকজন। এসময় জামালের বাড়ীর লোকজন তাদেরকে তাদের এই ভালবাসার বিষয়টা আর যাতে সামনের দিকে এগুতে না পারে সে ব্যাপারে হুশিয়ার করে দেন। জামাল তিন সন্তানের পিতা হয়ে জেনেগুনে কে পরকীয়ায় মত্ত্ হলেন। তার বিচারের আশ্বাস দিয়ে মাহমুদাকে তার বাড়ী চলে যেতে বলেন।কিন্তু মাহমুদা তাদের একথায় নিজের বাড়ী না গিয়ে বরং বিয়ের দাবীতে জামালের বাড়ী গিয়ে দরজার সামনে অবস্থান নেয়। অবস্থা বেগতিক দেখে প্রেমিক জামাল মিয়া বাড়ি থেকে পালিয়ে যাই।এদিকে জামালের বাড়ী মাহমুদার অবস্থানের খবর ছড়িয়ে পড়লে পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলোর উৎসুক শত শত লোক এঘটনাটি দেখতে ওই বাড়ীতে ভিড় জমায়।সে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত একটানা সেখানে অবস্থান নিয়ে ছিলেন। বিকেলে দিকে জামালের বাড়ীর লোকজন স্থানীয় ইউপি মেম্বার ও মাহমুদার বাড়ীর লোকজনের সাথে কথা বলে অনেকটা জোরপূর্বক তাকে বাড়ী পৌছে দেয়। সেই সাথে জামোলের উপযুক্ত বিচার করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

উল্লেখ্য যে প্রেমিক জামাল মিয়ার স্ত্রীসহ তিন সন্তান রয়েছে। অপরদিকে প্রেমিকা মাহমুদার এর আগে দুই-দুটি বিয়ে হয়েছিল বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে।

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ