আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশের ছদ্মবেশে ডাকাতি; ৫ ডাকাত গ্রেফতার

খাসখবর প্রতিবেদক

নরসিংদীতে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি মামলার ৫ আসামীকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ব্রাক্ষনবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ২ সেট পুলিশের পোশাক, ১ জোড়া হ্যান্ডকাফ, ১টি বেল্ট, ২০০ ইউএস ডলার, ২ হাজার সৌদি রিয়াল, ১১ হাজার বাংলাদেশি টাকা ও ডাকাতির কাজে ব্যাবহৃত একটি নোহা গাড়ী উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (২৪ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নরসিংদী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পশ্চিম মেড্ডা এলাকার মৃত ইসমাইলের ছেলে জয়নাল আবেদীন ( ৪৮ ), মধ্য মেড্ডা এলাকার মৃত ঝারু মুন্সির ছেলে মোঃ রাজিব মিয়া ( ৩৩ ), একই জেলার নবীনগর থানার নোয়াগ্রাম এলাকার মৃত জালাল মিয়ার ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ( ৫০ ) , কুমিল্লা জেলার হোমনা থানার দৌলতপুর এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ নাজির আহম্মেদ ( ৫৮ ) ও একই থানা-জেলার পশ্চিমমেড্ডা ( সিও অফিস ) এলাকার মৃত মজিবুর রহমানের ছেলে মোঃ শাহাজাহান মিয়া ( ৬০।

সংবাদ সম্মেলনে সাহেব আলী পাঠান জানায়, রায়পুরা উপজেলার মূছাপুর ইউনিয়নের বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান এলাকার মৃত হুমায়ূন কবিরের ছেলে মোঃ আক্তার হোসেন ( ৩৪ ) ভৈরব হাবিব সুপার মার্কেটে মোবাইল ফোনের ব্যবসা ও হজ্ব এজেন্সীর সাথে কাজ করে আসছে।

গত ১৬ জুন বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে মোঃ আক্তার হোসেন মার্কেটের দোকান বন্ধ করে একটি ল্যাপটপের ব্যাগের ভিতরে করে ৫০টি ১০০ ( একশত ) ইউএস ডলার নোট যাহা বাংলাদেশী টাকায় ৪ লাখ ৮৫ হাজার টাকা , ১৪০ টি ৫০০ ( পাঁচশত ) ও ১২ টি ১০০ ( একশত ) ১টি ৫০ ( পঞ্চাশ ) সৌদি রিয়াল মূল্যমানের নোট , {যাহা বাংলাদেশী টাকায় ১৮ লাখ ২০ হাজার টাকা ও ৩১ হাজার ২০০ টাকা , এবং এক হাজার ৩০০ টাকা সর্বমোট ১৮ লাখ ৫২ হাজার ৫০০ টাকা এবং বাংলাদেশী ২ লাখ ১৭ হাজার টাকা , যার ৪৩৪ টি ৫০০ টাকার নোট। সর্বমোট ২৫ লাখ ,৮৫ হাজার ৯০০ টাকা ও ২টি মোবাইল সেট নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে ভৈরব হতে নিজ বাড়ি রায়পুরার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। বিকেল ৫ টা ৫০ মিনিটের সময় রায়পুরা থানাধীন বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর উত্তর পাড়া ব্রীজের দক্ষিনে পৌঁছলে একটি সাদা নোহা মাইক্রোবাস যোগে ৩/৪ জন সিভিল পোশাক এবং ৩ জন পুলিশের পোষাক পরিহিত লোক তাকে আটক করে। পরে তারা তাকে এলোপাথাড়ী মারধর করে তার সাথে থাকা টাকার ব্যাগসহ সবকিছু ছিনিয়ে নেয়।

এঘটনায় তার ভাই মো:দেলোয়ার হোসেন (৩৬) বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় মামলা দায়ের করে।
রায়পুরা থানার মামলা নং-২৭ তাং-১৯/০৬/২২ ইং ধারা- ৩৪১/১৭০/৪১৯/৩২৩/৩৭৯/৫০৬ পিসি।

মামলা দায়েরের পর নরসিংদী পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, পিপিএম এর সরাসরি তত্বাবধানে ও দিকনির্দেশনায় ডিবি পুলিশ ছায়া তদন্ত শুরু করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাহেব আলী পাঠান ও ওসি ডিবি আবুল বাশার পিপিএম(বার) এর নেতৃত্বে জেলা গোয়েন্দা শাখা, নরসিংদীর এসআই মোঃ নজরুল ইসলাম,এস আই সাদেকুর রহমান সর্ঙ্গীয় অন্যান্য অফিসার ফোর্স সহ বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ব্রাক্ষনবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে আসামীদের গ্রেফতার করা হয়।

এসময় ২ সেট পুলিশের পোশাক,১ জোড়া হ্যান্ডকাফ,১টি বেল্ট,২০০ ইউএস ডলার, ২ হাজার সৌদি রিয়াল, ১১ হাজার টাকা ও ডাকাতির কাজে ব্যাবহৃত একটি নোহা গাড়ী জব্দ করা হয়।

আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা রায়পুরা থানায় পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ